Khabar Aajkal

শীতলকুচি কান্ডে মৃতদের পরিজনদের সরকারি চাকরি দেওয়ার বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর।।
Spread the love

শীতলকুচি কান্ডে মৃতদের পরিজনদের সরকারি চাকরি দেওয়ার কথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী।।

শীতলকুচি কান্ড নিয়ে একের পর এক কড়া পদক্ষেপ গ্ৰহণ মুখ্যমন্ত্রী। প্রথমেই, গতকাল সাসপেন্ড করা হয়েছিল কোচবিহারের এসপি দেবাশিস ধরকে। এরপর সিট গঠন করে পূর্ণাঙ্গ ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেয়েছেন তিনি। এরপর ঘোষণা করে ওই বুথের মৃত ব্যক্তিদের আত্মীয়দের সরকারি চাকরি দেওয়ার কথা বললেন মুখ্যমন্ত্রী।

চতুর্থ দফার ভোটের দিন একাধিক কারণে শিরোনামে উঠে এসেছিল শীতলকুচি। প্রথমবার শীতলকুচির ১২৬ নম্বর বুথে একদল দুষ্কৃতীদের গুলিতে মৃত্যু হয় বছর ১৮-র যুবক আনন্দ jok। অভিযোগের উঠেছিল তৃণমূলের বিরুদ্ধেই।

তা নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে যে পরবর্তী সময়ে যে পরিমাণ মেরুকরণের জল ঘোলা হয়েছিল সেই সম্পর্কে ওয়াকিবহাল রাজনীতির সচেতকরা। বিজেপি দাবি করেছিল, মমতা শুধুমাত্র কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে মৃত চার সংখ্যালঘু ব্যক্তির প্রতি সহানুভূতিশীল। অথচ আনন্দ বর্মণ নিয়ে তিনি চুপ।

যদিও মমতা এ দিন সমালোচার মুখ বন্ধ করতে জানান, কোচবিহারের শীতলকুচিতে মৃত পাঁচজনের পরিবারেই একজনকে সরকারি চাকরি দেওয়া হবে। হোমগার্ডের পদে পরিবারপিছু একজনকে চাকরি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এইদিন নবান্ন থেকে এক সাংবাদিক বৈঠক করে তিনি জানান, শীতলকুচি নিয়ে সিআইডি তদন্ত চালাচ্ছে। ওখানে পাঁচজন মারা গিয়েছিল, “চারজন রাজবংশী মুসলিম একজন হিন্দু। পাঁচজনের পরিবারকেই আমরা পাঁচটা হোমগার্ডের চাকরি দিচ্ছি। এই প্রতিশ্রুতিটা আমরা আগেই দিয়েছিলাম যে আমরা করব। আমরা দিচ্ছি ওদের চাকরি।”

এ দিনই আরও একটি বড় ঘোষণা করেন মমতা। তিনি জানান, নির্বাচন পরবর্তী হিংসায় যাদের মৃত্যু হয়েছে, রাজনৈতিক দল নির্বিশেষে সেই ১৬ জনের পরিবারকে দু-লক্ষ টাকা করে আর্থিক সাহায্য করবে রাজ্য সরকার।


Spread the love
News cordinator and Advisor at Khabar Aajkal Siliguri

Related Articles

Like Us on Facebook, It's Free 😉